Experience YourListen.com completely ad free for only $4 a month. Upgrade your account today!

01. হযরত আদম (আঃ) এ… জীবনী (প্রথম পর্ব)

Embed Code (recommended way)
Embed Code (Iframe alternative)
Please login or signup to use this feature.

“অতঃপর শয়তান তাকে কুমন্ত্রনা দিল, বললঃ হে আদম, আমি কি তোমাকে বলে দিব অনন্তকাল জীবিত থাকার বৃক্ষের কথা এবং অবিনশ্বর রাজত্বের কথা” [কুরআন ২০:১২০]

শাইতান আমাদের দুর্বল স্থানগুলোর ব্যাপারে অবগত থাকে, আর সেই স্থানেই সে আক্রমণ করে। সে আদমের কাছে কি খোলাখুলি ভাবেই বলে নি যে যাও আল্লাহ্‌কে অমান্য কর, না হলে আদম সেটা কখনই করতো না। সে তাকে বলল, এই গাছ তোমাকে অনন্ত জীবন দেবে, অসীম জীবন দেবে, তোমাকে রাজত্ব দেবে। আদম আর হাওয়া সেই গাছের ফল খেল আর এই কারণে আল্লাহ্‌ তাদের পৃথিবীতে নামিয়ে দিলেন।

যখনই আপনি এই আয়াত পড়বেন অথব এই কাহিনী শুনবেন, আপনি কি কখনও চিন্তা করেছেন যে কি করে এমন মহান একজন নবী এই ধরণের ভুল করতে পারেন? কখনও কি ভেবেছেন কি করে? আল্লাহ্‌ তাকে আদেশ দিয়েছিলেন সেটা স্পর্শ না করতে কিন্তু তিনি তার ফল খেলেন। আপনি কি কখনও ভেবেছেন এটা কি করে হল? আমার মনে হয় আপনাদের অনেকেই এই ধরণের চিন্তা রাখেন, যে কি করে? ইনি তো একজন আল্লাহ্‌র নবী!! যাই হোক, সেই সময়ে তিনি তখনও আল্লাহ্‌র নবী হন নি। পরে পৃথিবীতেই তিনি নবী হন।

আদম কেন এমনটা করলেন তা না ভেবে আমাদের নিজেদের পাপ আর ভুল করা নিয়ে চিন্তিত হওয়া উচিৎ নয় কি? এটা বোঝা অনেক বেশি কঠিন যে কেন আমরা পাপ করি। কারণ আদমের তো কোন অভিজ্ঞতা ছিলনা, তিনি শাইতান সম্পর্কে জানতেন না। তার শাইতান সম্পর্কে জ্ঞান থাকলেও অভিজ্ঞতা ছিলনা। অভিজ্ঞতা, জ্ঞানের চেয়ে ভিন্ন। আদম জানতেন শাইতান তার শত্রু, কিন্তু তিনি কখনই তার অভিজ্ঞতা লাভ করেন নি। এমনকি রাসূলাল্লাহ সা. ও বলেছেন, সংবাদ জানা আর দেখা এক নয়। আদমের জ্ঞান ছিল কিন্তু শাইতানের ব্যাপারে কোন অভিজ্ঞতাই ছিল না।

আমরা জানি আদমের সাথে কি হয়েছিল, আমরা জানি শাইতান কি করেছিল। আর আমরা মানবজাতির সুবিশাল ইতিহাসও দেখেছি। আর আমরাই একই ভুল বারংবার করে যাচ্ছি। আমাদের এটাকে প্রশ্নবিদ্ধ করা উচিৎ নয় যে আদম ভুল করেছিলেন। কারণ আদমের জন্যে এটি ছিল একটি নিরপরাধ ভুল। আর আল্লাহ্‌ তাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন। কারণ আদমের তখন পর্যন্ত কোন অভিজ্ঞতা ছিলনা। তাই আল্লাহ্‌ চেয়েছিলেন সেটা আদমের জন্যে একটা পরীক্ষা হয়ে যাক, যাতে সে সেখান থেকে শিক্ষা নিতে পারে। আর এটা আদমের আল্লাহ্‌র নবী হবার জন্যে একটি প্রস্তুতিও হতে পারে।

এটি ছিল আদমের জন্যে একটি প্রস্তুতি, আল্লাহ্‌ তাকে প্রস্তুত করছিলেন। ঠিক যেমন আল্লাহ্‌ দাউদ আ. কে একটি ভুলের মাধ্যমে শিক্ষা দিয়ে প্রস্তুত করছিলেন আর আমরা সে বিষয়ে কথা বলবো। আল্লাহ্‌ দাউদ আ. খালিফার দায়িত্বের জন্যে প্রস্তুত করছিলেন। আল্লাহ্‌ তাকে একটি বিচারের মধ্য দিয়ে পরিচালিত করেন আর তিনি সেখানে ভুল করে ফেলেন আর আল্লাহ্‌ তার সেই ভুল শুধরে দেন। আর বলেন, যে দাউদ এই ভুলের পর আগের চাইতে উত্তম হয়েছেন। তাই আল্লাহ্‌ আদমকে প্রস্তুত করছিলেন, যাতে তিনি সেই অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে যান আর শিক্ষা লাভ করেন। আর এটা তাকে এই পৃথিবীতে বেঁচে থাকতে প্রস্তুত করবে শাইতানকে চেনার জন্য।

"পথিকৃৎদের পদচিহ্ন: নবীদের জীবন" লেকচার সিরিজের প্রথম পর্ব হতে সংগৃহীত।

Licence : All Rights Reserved


X